ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং

বাংলাদেশ থেকে ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং পাওয়া খুবই কষ্টের এবং ব্যয়বহুল। কিন্তু আপনার ওয়েব সাইট বা ব্লগের জন্য ভাল মানের হোষ্টিং পাবেন কোথায়? বিদেশী কোম্পানীর কাছ থেকে এই সুবিধা নিতে গেলে আপনার আলাদা করে ক্রেডিট কার্ড কিংবা ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট সুবিধা লাগবে। অথচ হোষ্টিং ছাড়া আপনার ওয়েবসাইট লাইভ করাই যাবে না। আজ আমি আপনাদের জানাবো কিভাবে আপনি চিনবেন ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং কী? কেন তা আপনার প্রয়োজনের জন্য অনেক বেশি সামঞ্জস্যপুর্ন?

কিভাবে বুঝবেন কোনটা ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং?

তার আগে জেনে নিন হোষ্টিং কোম্পানী আপনাকে কী কী সুবিধা দেয়? তাদের সার্ভিস গুলো কী কী? হোষ্টিং কোম্পানী যে যে সুবিধা দেয় তা হলো-

১। একটি নির্দিষ্ট পরিমান ওয়েব স্পেস বা জায়গাঃ এখানে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় ওয়েব ফাইল বা এপ্লিকেশন আপলোড করে প্রকাশ করতে পারবেন। এর পরিমান ১ জিবি, ২ জিবি কিংবা আনলিমিটেড।

২। ব্যান্ডউইডথ বা তথ্য আদান প্রদানের হার বা পরিমানঃ  তথ্য আদান প্রদান বলতে বুঝানো হয় যে আপনার ওয়েব সাইটের তথ্য বা ফাইল সমূহ কে কতবার দেখল এবং এর জন্য ডাটা ট্রান্সফার কত বেশি হলো এগুলোর হিসাবকেই বলা হয় ব্যান্ড উইথ। আরো সহজ করে বলার জন্য একটা উদাহরন দিচ্ছি। যেমন আপনি ইন্টারনেট সেবাদানকারীর কাছে থেকে এক জিবি ইন্টারনেট কিনে যেভাবে তথ্য সমূহ ব্রাউজ করেন। এতে প্রতিটি ব্রাউজিং এ আপনার ডাটা কমে আসে। এর কারন ইন্টারনেটের প্রতিটি ফাইল ব্রাউজ করতে গেলেই ডাটা খরচ হয়। হোষ্টিং কোম্পানীর লগ খাতায়ও এমন একটি ডাটা কাউন্টার থাকে। ভিজিটর কতটা ব্রাউজ করলেন তার উপর ব্যান্ডউইডথ ব্যালেন্স কমে আসে। এর পরিমান অনেক কোম্পানীতেই নির্দিষ্ট হারে থাকে। ১০ জিবি, ২০জিবি ইত্যাদি। আনলিমিটেড সুবিধাও দেয়।

৩। ইমেইল একাউন্টঃ ইমেইল একাউন্ট হচ্ছে ওয়েব হোষ্টিং কোম্পানীর দেয়া একটা সুবিধা। এই সুবিধা দিয়ে আপনি আপনার ইউনিক ইমেইল যেমন you@yourdomain.com । এই সুবিধা একেক কোম্পানী একেক ধরনের দিয়ে থাকে। হোষ্টিং কোম্পানী শুধুমাত্র সামান্য প্রয়োজনীয় ব্যবসায়িক কাজ চালানোর মত ইমেইল সুবিধা দেয়। অন্যান্য হোষ্টিং কোম্পানী ৫ থেকে আনলিমিটেড পরিমানে ইমেইল একাউন্ট সুবিধা দেয়।

৪। ওয়েব টুলসঃ ওয়েব টুলস হিসাবে স্ক্রিপ্টিং সুবিধা দেয়। সহজ ইনস্টলেশন, এইচ টি এম এল এডিটর ইত্যাদি। এগুলো ফ্রী সার্ভিস।

৫। ডাটাবেজঃ ওয়েব সাইট তৈরীতে তিনটি(ডোমেইন, ডাটাবেজ, ওয়েবস্পেস) জিনিসের দরকার হবেই। তবে স্ট্যাটিক সাইটে ডাটাবেজ লাগে না। একেক কোম্পানী একেক ধরনের সুবিধা দেয়। তবে সবচেয়ে বড় ব্যপার হলো, কে কতগুলো ডাটাবেজ সুবিধা দিচ্ছে। একটি ডাটাবেজ দিয়ে কয়েকটি সাইট ইনস্টল করা যায়। তবে সবাই আলাদা ডাটাবেজে আলাদা ওয়েবসাইট ইনস্টল করেন।

৬। স্পিডঃ  স্পিড বলতে সার্ভারের ট্রান্সফার রেট বুঝাচ্ছি। অনেকেই খুব দামী সার্ভারে হোষ্টিং দিয়ে থাকেন।

এসব সুবিধা ছাড়াও অন্যান্য অনেক সুবিধা ওয়েব হোষ্টিং কোম্পানীগুলো দেয়। ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশন কিংবা ট্রান্সফার সুবিধা দেয় আলাদা ফী এর বিনিময়ে। ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং নিতে হলে আপনার আরো বেশি পরিমানে টেকনিক্যাল জ্ঞান অর্জন দরকার।

কিভাবে ভাল মানের ওয়েব হোষ্টিং নিবেন?

অনেক কোম্পানী আছে দেশে বিদেশে। সবার আলাদা আলাদা সুবিধা সহ প্যাকেজ আছে। আপনার কোনটা দরকার তা আপনিই নির্ধারন করবেন। তবে আমি দেশি কোম্পানীর হোষ্টিং নিয়ে হতাশ। এদের ডাটা ট্রান্সফার সুবিধা খুবই খারাপ মানের হয়। এছাড়া আছে সাইট বন্ধ হয়ে যাওয়া সহ নানান অসুবিধা।

আপনি যদি মনে করেন যে আপনার কোন ভাল  মানের ওয়েব হোষ্টিং লাগবে যা শুধু আপনার ওয়েবসাইট মেইন্টেইনের জন্য তবে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আমরা সাধারনত কোন হোষ্টিং সার্ভিস প্রদান করি না। আমাদের প্রধান কাজ হচ্ছে ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট। আমাদের সাথে চাইলে আপনি একটি নির্দিষ্ট ডিজাইন কিনে নিয়ে ওয়েব হোষ্টিং সার্ভিস নিতে পারেন।

আমরা আপনাকে যা দেবো-

 ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশনে সহায়তা     ফিঃ ৫ডলার থেকে ১৫ ডলার প্রতি বছর অথবা ৪০০টাকা থেকে ১২০০টাকা/প্রতি বছর

 

ওয়েব হোষ্টিং (শেয়ারড)              ফিঃ তিন হাজার টাকা প্রতি বছর

ইমেইল একাউন্ট (৫টি) আলোচনা সাপেক্ষে  ফিঃ ফ্রী, হোষ্টিং প্যাকেজের সাথে

ডাটাবেজ (মাই এস কিউ এল)  ২টি    ফিঃ ফ্রী, হোষ্টিং প্যাকেজের সাথে

সাইট হোষ্টিং      – আপনি সর্বোচ্চ একই সাথে দুইটি ওয়েব সাইট লাইভ দেখাতে পারবেন  ফিঃ ফ্রী, হোষ্টিং প্যাকেজের সাথে

ওয়েব মেইন্ট্যান্যান্স              ফিঃ ফ্রী(প্রথম ৬মাস), হোষ্টিং প্যাকেজের সাথে । এর পরে আলোচনা সাপেক্ষে ফি নেয়া হবে।

ওয়েব ডিজাইন সহযোগীতা    ফিঃ আলোচনা সাপেক্ষে নির্দিষ্ট হবে। ৩০০০টাকা থেকে শুরু

সব মিলিয়ে পুরো প্যাকেজ আপনি নিতে পারবেন- ৬৫০০টাকা থেকে শুরু করে অন্য যে কোন পরিমান আলোচনা সাপেক্ষে।

সুবিধাঃ ভিজিটর নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে না। কতজন মাসিক ভিজিটর সাইটে আসছে তার জন্য আপনার কোন চিন্তা করতে হবে না। প্রতিদিন হাজার হাজার ভিজিটর হলেও সাইট ব্যান্ডউইডথ শেষ হবে না।

স্প্যামঃ স্প্যামিং এর জন্য সাইট ব্লক হতে পারে। তবে আমাদের চেষ্টা থাকবে যত দ্রুত আবার সাইট লাইভ করে দেয়া।

আপনার যদি কোন ইকমার্স সাইট দরকার হয় তবে আজই যোগাযোগ করুন। আমাদের সাথে যোগাযোগের লিংক – http://sobshomoy.com/contact/